x 
Empty Product
  • 0b.jpg
  • 1b.jpg
  • 2b.jpg
  • 3b.jpg
  • 4b.jpg
  • 5b.jpg
  • 8b.jpg

নিউজ আপডেট : আমের সর্বশেষ খবর

.

একনজরে আমাদের প্যাকেজিংঃ

আমের ব্যাবসা করতে চাচ্ছেন?

সরাসরি রাজশাহী চাঁপাই নবাবগন্জ থেকে পাঠানো আম নিয়ে ব্যবসা করতে চান? (2)

User Rating:  / 0
PoorBest 

সরাসরি রাজশাহী চাঁপাই নবাবগন্জ থেকে পাঠানো আম নিয়ে ব্যবসা করতে চান?
তাহলে পোষ্ট টি আপনার জন্য।
আমাদের আম এবং এর প্যাকেজিং এর ছবিগুলো দেখেন। ভালো লাগলে নিচে বিস্তারিত পড়ুন:

সরাসরি রাজশাহী চাঁপাই নবাবগন্জ থেকে পাঠানো আম নিয়ে ব্যবসা করতে চান?
তাহলে পোষ্ট টি আপনার জন্য।
আমাদের আম এবং এর প্যাকেজিং এর ছবিগুলো দেখেন। ভালো লাগলে নিচে বিস্তারিত পড়ুন:

 

অনলাইনে রাজশাহীর আম। বর্তমানে একটি সম্ভাবনা। মাত্র এক মাসের ব্যবসা। একটু সময় দিলেই কিছু হালাল পয়সা ইনকাম করতে পারবেন।

বাঙ্গালী হিসেবে এটা আমাদের একটা প্রচলন- আম সিজনে একটা বাল্ক পরিমান আম সংগ্রহ করা। আমাদের জরিপে দেশে এমক কোন পরিবার নাই যারা আম সিজনে বাল্ক পরিমান আম সংগ্রহ করেন না। এটা পরিবার ভেদে ৫ কেজি থেকে কয়েক মণ। তবে কোয়াটার বা আধা মণ এর কাষ্টমার বেশি। আম ব্যাতিত অন্য কোন ফল কোন পরিবার এভাবে কিনেন না।

আপনি যেহেতু পোষ্ট টি পড়ছেন, ধরে নিচ্ছি আপনি ব্যবসার সাথে জড়িত অথবা ব্যবসা পছন্দ করেন। নিশ্চয় আপনার কিছু ফেইথ কাষ্টমার বা আপন জন আছে। আম সিজনে এ সুজোগটা আপনি কাজে লাগাতে পারেন। অর্থাৎ যাদের কাছে সারা বছর আপনি জামা-পোশাক সেল দেন, আম সিজনে তাদের কাছে আমও বেচবেন।

আর এটা করবেন খুব সহজে।
কাষ্টমার আপনার, বাকি সবকিছু আমাদের।
বিষয় টা খারাপ হবে না। ভাবতে পারেন।

আর সবার আগে আমাদের সম্পর্কে জানুন:

আমাদের পরিচয়: Fozli Mango Pack এর ব্যানারে আমরা দেশের প্রথম সারির অনলাইন আম ব্যাবসায়ী যেখানে ২০১৩ সাল থেকে “Fozli.com” নামক ওয়েব সাইটের মাধ্যমে আমরা আমাদের ব্যাবসা পরিচালনা করে থাকি। পরবর্তিতে RajshahiMango.com, Himsagor.com, Amropali.com, KansatMango.com, AamBazar.com সহ MangoNews24.com পোর্টালগুলোর মাধ্যমে আমরা আমাদের অনলাইন পরিধি বাড়িয়ে চলেছি। আমাদের রয়েছে ছোট বড় মিলিয়ে সর্বমোট ৪৯ টি নিজস্ব আম বাগান যেখনে প্রায় ৫০০+ গাছ এবং আরও কিছু চুক্তিবদ্ধ আমবাগান, যেখানে ২০০০+ আমগাছের মাধ্যমে বছরে ৬-১০ হাজার মণ সেমি অর্গানিক আম উৎপাদন সম্ভব।
তবে এটাও রাথুন- আমরা নিজেদের বাগানের পাশাপাশি অন্য কৃষক থেকে আম সংগ্রহ করেও থাকি।

কেনো করবেন: আম ব্যাবসা একটি সিজিওনাল ব্যাবসা যা মাত্র ৪০-৬০দিনের মত হয়ে থাকে। মানুষ যখন ফরমালিন কেমিক্যাল আতঙ্কে অতিষ্ঠ তখন সবাই চাই কিছু টাকা বেশি দিয়ে হলেও বিশ্বস্থ কারো কাছ থেকে সরাসরি বাগান থেকে সংগ্রহ করা ফরমালিন কেমিক্যাল মুক্ত আম কিনতে। আপনি যখন শতভাগ নিশ্বয়তার সাথে ফরমালিন কেমিক্যাল মুক্ত আম বিক্রয় করবেন, সেক্ষেত্রে সবাই আপনাকেই বেছে নিবেন এবং আপনিও এই অল্প কদিনে ৫০,০০০ থেকে লক্ষাধিক টাকা হালাল আয় করবেন যদি আপনি দিনে কমসে কম ৩/৪ প্যাকেট আম বিক্রয় করেন।

কারা কারা পারবেন:
# যে কোন অনলাইন ব্যাবসায়ী বা দোকানদার। আপনি আপনার পরিচিত কাষ্টমার ছাড়াও আপনি চাইলে আপনার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে “রাজশাহীর আমের মেলা” ব্যানারে ব্যাবসা করতে পারেন।
# যে কোন চাকুরীজিবি। আপনি চাইলে আপনার অফিস কলিগ ও পরিচিত জনদের কাছে বিশ্বস্থতার সাথে সরাসরি বাগান থেকে সংগ্রহ করা ফরমালিন কেমিক্যাল মুক্ত রাজশাহীর আম বিক্রয় করতে পারেন।
# আপনি যদি ছাত্র বা বেকার যুবক হন তাহলে আপনি আপনার এলাকা বা যে কোন প্রতিষ্ঠানে সরাসরি মার্কেটিং এর মাধ্যমে বিশ্বস্থতার সাথে রাজশাহীর ফরমালিন কেমিক্যাল মুক্ত আমগুলো বিক্রয় করতে পারেন।
# আপনি যদি ফল ব্যাবসায়ী হোন কিন্তু ব্যাবসার ব্যাস্ততার কারনে মোকামে আসতে পারছেন না তবে আপনিও পাইকারি দর ও ওজনে বিভিন্ন গ্রেডের আম কিনে খুচরা বিক্রয় করতে পারেন।

প্যাকেজিং ও পরিবহন ব্যাবস্থা: ১০কেজি, ১৫কেজি, ও ২০কেজির প্যাক হয়। কিন্তু ২০ কেজির প্যাকেট গুলো খুবই আকর্ষনীয় হয়। নিজস্ব ব্রান্ডিংয়ে ঢাকনা সহ প্লাস্টিকের ক্যারেটে কাটিং পেপার বিছিয়ে দুই লেয়ারের মাঝে ফোমপ্যাড দিয়ে আম সাজানো হয় এবং সিকিউরিটি ক্লিপ দিয়ে ঢাকনাসহ ক্যারেটটি ইনট্যাক্টিং করা হয়। কাষ্টমার নিজ হাতে ক্যারেটের সিকিউরিটি ক্লিপ কাটেন এবং নিশ্চত হন যে আমগুলো ১০০% ফরমালিন ও কেমিক্যাল মুক্ত। এছাড়াও অন্যন্য প্যাকগুলো ডাবল লেয়ারের কাটুনে পুরে প্লাস্টিক বস্তায় মোড়ানো হয়। পরিমান বেশি (৩মণ+)হলে ট্রাক, অন্যথায় চাহিদামত কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে প্যাকগুলো সরাসরি কাষ্টমার বা ডিলার পর্যন্ত পৌছানো হয়।

লাভের হিসাব: আপনি প্রতি কেজিতে ১০টাকা নিশ্চত মুনাফা লাভ করবেন। এছাড়াও আপনি আপনার এলাকাভেদে স্থানীয় আম বাজারের সাথে তুলনা করে কেজি প্রতি ১০-৩৫ টাকা মুনাফা লাভ করবেন যা আপনার বিক্রয় দক্ষতার উপর নির্ভর করবে। পচন বা আঘাতপ্রাপ্ত আম গুলোর শতভাগ রিপ্লেসমেন্ট দাওয়া হয়। তাই অর্ডার করলেই আপনার মুনাফা নিশ্চত বলা যেতে পারে।

কিভাবে হবেন: কোন প্রকার জামানত ছাড়ায় খুব সহজে আমাদের একজন গর্বিত পার্টনার হতে পারেন। আপনার নাম, মোবাইল ও জেলা/উপজেলার নাম লিখে আমাদেরকে ইনবক্স অথবা মেইল করুন। আমরাই আপনার সাথে যোগাযোগ করবো।

আমাদের সাথে যোগাযোগ:
ফজলি ম্যাংগো প্যাক
কানসাট আম বাজার, শিবগন্জ, চাঁপাই নবাবগন্জ,।
প্রোজেক্ট লোকেশন: মকিমপুর, চককির্ত্তী, শিবগন্জ, চাঁপাই নবাবগন্জ।
মোবাইল: 01612-339955, 01712-339955, 01919-339955
মেইল: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.
ফেসবুক: fb.com/aam247
ইউটিউব:Youtu.be/MangoRajshahi
ওয়েব: Fozli.com

সরাসরি আসতে চাইলে:
# বাস যোগে: কল্যানপুর,শ্যামলী,নর্দা বা গাবতলী থেকে বাসযোগে সরাসরি কানসাট পর্যন্ত আসা যায়। এভাবে কানসাট পর্যন্ত আসার পর আমাদের নাম্বারে যোগাযোগ করলে আমরা আপনাকে এস্তেগবাল করবো। “ন্যাশনাল ট্রাভেলস ০১৭২৭৫৪৫৪৬০” “দেশ ট্রাভেলস-০১৭৬২৬৮৪৪০৯ “আকিব ট্রাভেলস-০১৭১০৪৩৮৪১১” সহ বেশ কয়েকটি গাড়ি এ রুটে ভালো মানের সার্ভিস প্রদান করে। ডে-কোচ নাই। ভাড়া-৬০০ টাকা (২০১৯)।
# ট্রেন যোগে: কমলাপুর বা এয়ারপোর্ট থেকে ভুমকেতু (ভোর ৬:০০) সিল্কসিটি(দুপুর ০২:৪০),পদ্মা(রাত ১১:১০- বিমানবন্দর) ট্রেনযোগে রাজশাহী পর্যন্ত আসতে হবে। ভাড়া ৩৪০ টাকা । এরপর “গৌড় স্পেশাল” নামক আন্তজেলা বাসে সরাসরি কানসাট পর্যন্ত আসা যায়। ভাড়া-৯৫ টাকা (২০১৯)।

শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য ধন্যবাদ
মুহাম্মাদ আব্দুল্লাহ
ফাউন্ডার, ফজলি ম্যাংগো প্যাক
ফোন: 01712-339955
ফেসবুক: https://web.facebook.com/noyon4bd

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found

Fozli.com Offers

আম ডেলিভারি পয়েন্ট

দেশের প্রায় সকল জেলায় আম পাঠানোর অভিজ্ঞতা আমাদের রয়েছে। এছাড়াও "কুরিয়ার সাভিস" বা পার্সেলে লেনদেন হয় এমন যেকোন জায়গায় আম পাঠানো সম্ভব। তাছাড়া অল্প কিছু শহরে আমাদের রিসেলার বা ডিলারও রয়েছেন যারা হোম ডেলিভারি সেবা দিয়ে থাকেন।

 

এক নজরে দেখে নিন জেলা ভিত্তিক

আম ডেলিভারি পয়েন্ট

 

 

আলোচিত আমের খবর

ঘরে বসে নিজেই তৈরি করুনঃ আমের বিভিন্ন আচার ও মজাদার খাবার

প্লাস্টিক ঢাকনাসহ আমাদের স্মার্ট প্যাকঃ এক নজরে আমরা যেভাবে আম পাঠাই

আম চাষ ও আম বাগান করার পদ্ধতি

অঙ্গ ছাঁটাই

চারা নির্বাচন

আম পাড়ার সময় লক্ষনীয়

জোড় কলম

পোকা দমন

অঙ্গজ পদ্ধতিতে বংশ বৃদ্ধি

চারা রোপণ দূরত্ব

আম ট্রিটমেন্ট

ভিনিয়ার কলম

মাতৃগাছ নির্বাচন

অসঙ্গতিযুক্ত চারাগাছ

চারা রোপণের সময়

আম সংগ্রহের উপযুক্ত সময়

টপওয়ার্কিং

রোপণ পরবর্তী পরিচর্যা

আগাছা দমন

জমি তৈরি

আম সংগ্রহ

ট্রিটমেন্টের উপকারিতা

সংগ্রহোত্তর পর্যায়ে ক্ষতি

আম গাছের শ্রেণীবিভাগ

জমিতে গর্ত তৈরি

আম প্যাকিং

ট্রিটমেন্টের পুরানো পদ্ধতি

আমের শোষক পোকা

আমের চারা উৎপাদন

নার্সারি থেকে গাছ সংগ্রহ

আম সংগহোত্তর পরিবহণ

ট্রিটমেন্টকালীন সাবধানতা

আমের অঙ্গ বিকৃতি

আমের জাত নির্বাচন

পানি সেচ

ডাল ছাঁটাই

ফাটল কলম

আমের আঠা ঝরা

আমের পুষ্টতা নির্ধারণ

পাহাড়ি এলাকার চাষ

কোথায় আম রাখতে হবে ?

স্টোন গ্রাফটিং

আমের আনথ্রাকনোজ

বাগানে আন্ত ফসল

সার প্রয়োগ

গাছ থেকে আম সংগ্রহ

বাছাই ও শ্রেণীবিন্যাস
আমের ফ্রুট ফ্লাই পোকা

ফলন্ত গাছের পরিচর্যা

সেচ প্রয়োগ

চারা গাছের মুকুল

বীজতলা তৈরি
আমের ফল ছিদ্রকারী পোকা

আমের দেশে বিশেষ কিছু পর্যটন সমৃদ্ধ ঐতিহ্যবাহী স্থানসমুহ

 
ছোট সোনা মসজিদ (ভিডিও)
অপূর্ব স্থানত্য কলার প্রাচীন নিদর্শন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলাধীন শাহ্বাজপুর ইউনিয়নের ফিরোজপুর মৌজায় অবস্থিত সোনা মসজিদ। চাঁপাইনবাবগঞ্জ হতে গৌড়ের কোতওয়ালী দরজা আসতে মহাসড়কের ডান
 
 
নাচোলে ৫’শ বছরের পুরণো তেঁতুল গাছ (ভিডিও)
নাচোল উপজেলার নেজামপুর ইউনিয়নের গুড়লা গ্রামে প্রায় ৫’শ বছরের অতি প্রাচী তেঁতুর গাছ এর অস্তিত্ব রয়েছে। প্রাচীন এ তেঁতুল গাছটি ঐ ইউনিয়নের শুড়লা গ্রামের, শুড়লা মৌজায় ১ নং খতিানবূক্ত ৫০২
 
 
গৌড় নগরীর শেষ পরিনতি
ধনে জনে পরিপূর্ণ অপূর্ব সৌন্দর্যের ভিত্তিভূমি চির ঐশ্বর্য্যশালিনী গৌড় নগরী এক সময় সমগ্র উপমহাদেশে অত্যান্ত সুশ্রীনগরী হিসেবে রাজ্যের রাজাদের নিকট ছিল ইর্শ্বনীয়। বহু প্রাচীন কাল হতে এর সৌন্দর্যমন্ডিত উর্বর শ্যামল
 
 
গৌড়
বাংলার প্রাচীন রাজধানী ঐতিহাসিক গৌড় নগরী।বহু বাঙ্গাগড়া ও উথান পতনের বিশাল ইতিহাসের পাদপীঠ এ গৌড় নগরী। তাই এ অঞ্চলের মাটি নানান ঐতিহাসিক কর্মকান্ডের নীরব সাক্ষী। নানা ধর্মাবলম্বী রাজা,
 
 
নওদা বুরুজ (ভিডিও)
চাঁপাইনবাগঞ্জ জেলার বর্তমানে সর্ব প্রাচীন প্রত্নসম্পদ ও লুকায়িত ইতিহাস সমৃদ্ধ স্থানের নাম নওগা বুরুজ। গোমস্তাপুর উপজেলার  রহনপুর খোয়ারের মোড় হতে সোজা প্রায় ১কিঃমিঃ উত্তওে এটি অবস্থিত। স্থানীয় অধিবাসীরা এ স্থানকে
 
 
ধূনিচক বা ধনাইচকের মসজিদ (ভিডিও)
 ঐতিহাসিক গৌড় নগরীর কোতওয়ালী দরজার পূব দক্ষিণে বালিয়াদীঘি গ্রামের সন্নিকটে প্রায় অর্ধ  কি: মিপূর্ব প্রান্তে ধনুচকের মসজিদ অবস্থিত। এর দক্ষিণে একটি ছোট এবং পূর্র্ব প্রান্তে
 
 
রাজবিবির মসজিদ (ভিডিও)
গৌড় লখনৌতির বাংলাদেশ অংশে যে সমস্ত   প্রাচীন স্থাপত্যকালের অপূর্ব নিদর্শন রয়েছে তম্মধ্যে রাজবিবির মসজিদই সর্বশেষ্ঠ । শুধু মাত্র গৌড়ের ইটের সাহায্যে নির্মিত এ মসজিদটির অংগসোষ্ঠব গাত্র অলংকরণ খুবই  প্রসংশাযোগ্য চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলাধীন শিবগঞ্জ উপজেলার শাহাবাজপুর
 
 
কোতওয়ালী দরজা (ভিডিও)
ঊালিয়াদীঘি ডানে রেখে সোজা উত্তর পশ্চিমে ভারত সীমানার মধ্যে অবস্থিত কোতওয়ালী দরজা।এই সীমান্তের জিরো লাইন থেকে দেখা যায়। এটি গৌড়ের দক্ষিণ পূর্ব  সিংহ  দ্বারও বলা হয়ে থাকে।
 
 
শাহ নিয়ামতউল্লাহ্ (রঃ) এর জামে মসজিদ
শাহ্ সূজার প্রাসাদ বা তহাখানার উত্তর পশ্চিমে কোণে এই সুরম্য তিন গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদটি অবস্থিত। এটিও মুগল যুগের এক অনুপম স্থাপত্য কলার এক অপূর্ব প্রাচীন নিদর্শন। মসজিদটি অপেক্ষাকৃত উটু ভিটের উপর অবস্থিত।
 
 
তহাখানা কমপ্লেক্স (ভিডিও)
তহাখানা বা তাহাখানা একটি তিনতলা বিশিষ্ট রাজ প্রাসাদ। প্রাচীন গৌড় লখনৌতির ফিরোজপুর এলাকার পূরাকীর্তিগুলির মধ্যে এ স্থানেই তিনটি প্রাচীন নিদর্শন বিদ্যমান। এর মধ্যে তহাখানা অন্যতম। তহাখানা ফার্সি শব্দ,
 
 
হযরত শাহ্ নিয়ামতউল্লাহ (রঃ) সংক্ষিপ্ত জীবন পরিচিতি (ভিডিও)
হযরত শাহ্ নিয়ামতউল্লাহ (রঃ) এর পূর্ব পুরুষগণ ছিলেন পবিত্র মক্কা মু’আযযামার অধিবাসী বানু আসাদ  গোত্রের হাপদী কবীলার  অন্তভর্’ক্ত কোরইশী বংশোদ্ভুত। হিজরী দ্বিতীয় শতাব্দীতে এ ক্বাবিলা ইসলাম প্রচারার্থে
 
 
গৌড় নগরীর অবস্থান
বাংলার সুপ্রচীন রাজধানী ঐতিহাসিক গৌড় নগরী পুরনো গঙ্গা ও মহানন্দা নদীর সাবেক সংগম স্থলর নিকট একটি সংকীর্ণ ভূখন্ডের উপর অবস্থিত। বাঙালীর  ইতিহাস-আদিপূর্ব-এরে লেখক আচার্য নীহার
 
 
গৌড় নগরীর জন্ম
ঐতিহাসিক গৌড় নগরীর জন্ম কখন্য ? এ নিয়ে নানা জনের রয়েছে নানা অভিমত। কোন কোন ঐতিহাসিকের মতে গৌড় নগর খৃষ্টপূর্ব অষ্টম শতাব্দীতে নির্মিত হয়েছিল। গৌড় প্রথমতঃ পুন্ড্রবর্ধনের একাংশ ছিল ।
 
 
টাকশাল দীঘি
ছোট সোনা মসজিদ এর পূর্ব প্রান্তরে বাঁধাই কবরের উত্ত্র প্রান্তে একটি বিশাল আকৃতির দীঘি বিদ্যমান। এটি টাকশাল দীঘি নামে পরিচিত। ঐতিহাসিক রজনী বাবু, মাওলানা আমিরুল ইসলাম সহ অনেক পন্ডিত ব্যাক্তি
 
 
গড়
ভোলাহাট উপজেলার পশ্চিম সীমান্ত এবং শিবগঞ্জ উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের স্থল বন্দরের পশ্চিম উঁচু যে বাঁধ দেখা যায়, স্থানীয় অধিবাসিরা একে গড় বলে। মূলতঃ প্রাচীন যুগের গৌড় বঙ্গের রাজধানী ঐতিহাসিক
 

আমাদের আরও কিছু আম সম্পর্কিত নিজস্ব পোর্টাল সমুহঃ

আম ডেলিভারি হয় এমন সকল কুরিয়ার সার্ভিস গুলোর বিভিন্ন পয়েন্টের ঠিকানাঃ

 

 

মোবাইলে তথ্য পেতে আপনার নাম ও মোবাইল নাম্বার টি পাঠিয়ে দিন

সাথেই থাকুন

নিজেকে যুক্ত করুন আমাদের সাথে......

আমের সব খবর পৌছে দিব সময় মত......