x 
Empty Product
Wednesday, 04 September 2013 07:04

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ল্যাংড়ার চেয়ে সুমিষ্ট নতুন জাতের আমের সন্ধান

Written by 
Rate this item
(0 votes)

আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রাকৃতিক নিয়মে জন্ম নেয়া অত্যন্ত সুমিষ্ট নতুন জাতের আমের সন্ধান পাওয়া গেছে। এই জাতের একমাত্র গাছটি রয়েছে শিবগঞ্জ উপজেলার শাহবাজপুর ইউনিয়নের শিয়ালমারা গ্রামের জালু সর্দারের আম বাগানে। উদ্ভীদ বিজ্ঞানীদের ধারণা, নতুন জাতের এই আমটি গোটা দেশে ছড়িয়ে দিতে পারলে আমের জগতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসবে এবং আমচাষিসহ বাগান মালিকরা অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবে

চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, আমের রাজা ল্যাংড়ার চেয়ে সুমিষ্ট এই নতুন আমটির জাতের বৈশিষ্ট্য হলো, দেশে যখন আমের মৌসুম শেষের পর্যায়ে অর্থাৎ আগস্টের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে এটি পাকতে শুরু করে। ফলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই আম পাওয়া যায়। দেশের আবহাওয়া অনুযায়ী এসময় শুধু মাত্র আশ্বিনা জাতের আম বাজারে পাওয়া যায়। কিন্তু এই আম অত্যন্ত পচনশীল ও পোকাযুক্ত হয়। কিন্তু নতুন জাতের এই আমটির স্বাদ ল্যাংড়ার চেয়ে সুমিষ্ট। আর খোসা ও আঁটি দুটিই পাতলা এবং ছোট হওয়ায় আমটির ভক্ষণযোগ্য অংশও বেশি। এছাড়া আমটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো সহজেই পচনশীল নয়। ফলে আমটি গাছ থেকে পাড়ার প্রায় ৮ থেকে ১০ দিন পর এটি নষ্ট না হয়ে পাকতে শুরু করে। এছাড়া এই আমে পোক-মাকড়ের আক্রমণ একেবারে নেই বললেই চলে। তাই উদ্ভিদ বিজ্ঞানীদের ধারণা, নতুন জাতের এই আমটি গোটা দেশে ছড়িয়ে দিতে পারলে আমের জগতে নতুন এক বিপ্লব বয়ে নিয়ে আসবে। এছাড়া আম চাষির পাশাপাশি দেশের অর্থনীতিতেও ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

সবদিক বিবেচনায় এনে কৃষিবিদরা নতুন জাতের এই আমটির নাম দিয়েছেন 'গৌড়মতি'। কারণ শিবগঞ্জের এই এলাকাটি একসময় প্রাচীন গৌড় রাজ্যের অধীনে ছিল। আর অসময়ে অর্থাৎ আমের প্রায় শেষ মৌসুমে অত্যন্ত সুমিষ্ট জাতের এই আম বাজারে আসবে বিধায় এটি মানুষের মাঝে এর চাহিদাও বৃদ্ধি পাবে। সেই অর্থে এই আমটি মতির চেয়েও মূল্যবান। এসব কারণ বিবেচনায় রেখে আমটির নামকরণ করা হয়েছে গৌড়মতি।

Read 3291 times Last modified on Sunday, 01 December 2013 10:18

Leave a comment

Make sure you enter the (*) required information where indicated. HTML code is not allowed.