x 
Empty Product
Friday, 16 August 2013 13:39

পরিবহন ধর্মঘটে বিপাকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম ব্যবসায়ীরা

Written by 
Rate this item
(0 votes)

রাজশাহী বিভাগে সোমবার সকাল থেকে শুরু হওয়া পরিবহন ধর্মঘটে বিপাকে পড়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম ব্যবসায়ীরা। চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিভিন্ন আম বাগানের প্রতিদিনের কর্মচাঞ্চল্য পরিবহন ধর্মঘটের কারনে অনেকটা ফিকে হয়ে গেছে।  চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে প্রতিদিনই কয়েকশ ট্রাক আম নিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যায়। পরিবহন ধর্মঘটে ফলে তা বন্ধ আছে। যার প্রভাব পড়েছে স্থানীয় বাজারে,কমেছে আমের দাম।
চাঁপাইনবাবগঞ্জের বড় আমের বাজার শিবগঞ্জের কানসার্টে আমের দাম কমে গেছে, কানসার্টের আম ব্যবসায়ী রুবেল হোসেন জানান রোববার বাজারে খিরসা আম ৩৪০০ টাকায় বিক্রি করলেও আজ সোমবার তা ২৪০০ টাকায় বিক্রি করছেন। কানসার্ট বাজারের রুবেলের মত একই অবস্থা অন্য আম ব্যবসায়ীদের। বাজারে  পর্যপ্ত আম থাকায় দাম কমেছে, ল্যাংড়া আম (পাকা) রোববার ২৪০০-২৫০০ টাকা মন বিক্রি হলেও সোমবার বিক্রি হচ্ছে ১৬০০-১৭০০ টাকা, কাচা ল্যাংড়া আম  ২২০০ টাকা মন থেকে নেমে বিক্রি হচ্ছে ১২০০-১৩০০ টাকায়। ফজলী পাকা ২৩০০-২৪০০ টাকা থেকে নেমে বিক্রি হচ্ছে ১৭০০-১৮০০ টাকায় অন্যদিকে কাঁচা ফজলি ২১০০ টাকা থেকে কমে ১৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এই নিয়ে কানসার্ট আম আড়ৎদার সমিতির সভাপতি নজরুল ইসলাম জানান পরিবহন ধর্মঘটে প্রায় ২ শতাধিক ট্রাক আটকে আছে। আর এই সব ট্রাক গন্তব্যে না যেতে পারলে প্রায় ১ কোটি টাকারও বেশি তি হবে। যদি ধর্মঘট দীর্ঘায়িত হয় তবে তির পরিমান আরো বাড়বে। জেলার অন্য বাজার গুলোতে দামের কিছুটা হেরফের হলেও সবখানেই দাম কমেছে। আর এই দাম কমায় ক্রেতারা খুশি,চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের পুরাতন বাজারে আশা আলিউজ জামান নুর জানান আমের দাম কমায় ২০ কেজি আম নিয়ে বাসায় যাচ্ছি। অনেকেই এই সুযোগে কিছুটা কম দামে আম কিনেছেন।
এই নিয়ে  চাঁপাইনবাবগঞ্জের এক কুরিয়ার সার্ভিসের পার্শেল ইনচার্জ জানান তাদের শাখা থেকে প্রতিদিন গড়ে  ১ হাজার ঝুড়ি আম দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানোর জন্য বুকিং হত।  পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত আম বুকিং বন্ধ থাকবে বলে জানান তিনি। আর এতে প্রিয়জনের কাছে আম পাঠানো নিয়ে বিপাকে পড়েছেন অনেকে। এই নিয়ে কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক আবুল কালাম আজাদ জানান এবছর আমের উৎপাদন ভাল হয়েছে. সঠিক ভাবে আম পরিবহন ও বাজারজাত করতে পারলে আর্থিক ভাবে লাভবান হবে আম চাষী ও ব্যবসায়ীরা। এেেত্র আম ব্যবসার স্বার্থে আমাদের সকলকেই সহযোগিতা করা উচিত।
আব্দুর রব নাহিদ,চাঁপাইনবাবগঞ্জ: রাজশাহী বিভাগে সোমবার সকাল থেকে শুরু হওয়া পরিবহন ধর্মঘটে বিপাকে পড়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম ব্যবসায়ীরা। চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিভিন্ন আম বাগানের প্রতিদিনের কর্মচাঞ্চল্য পরিবহন ধর্মঘটের কারনে অনেকটা ফিকে হয়ে গেছে।  চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে প্রতিদিনই কয়েকশ ট্রাক আম নিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যায়। পরিবহন ধর্মঘটে ফলে তা বন্ধ আছে। যার প্রভাব পড়েছে স্থানীয় বাজারে,কমেছে আমের দাম।
চাঁপাইনবাবগঞ্জের বড় আমের বাজার শিবগঞ্জের কানসার্টে আমের দাম কমে গেছে, কানসার্টের আম ব্যবসায়ী রুবেল হোসেন জানান রোববার বাজারে খিরসা আম ৩৪০০ টাকায় বিক্রি করলেও আজ সোমবার তা ২৪০০ টাকায় বিক্রি করছেন। কানসার্ট বাজারের রুবেলের মত একই অবস্থা অন্য আম ব্যবসায়ীদের। বাজারে  পর্যপ্ত আম থাকায় দাম কমেছে, ল্যাংড়া আম (পাকা) রোববার ২৪০০-২৫০০ টাকা মন বিক্রি হলেও সোমবার বিক্রি হচ্ছে ১৬০০-১৭০০ টাকা, কাচা ল্যাংড়া আম  ২২০০ টাকা মন থেকে নেমে বিক্রি হচ্ছে ১২০০-১৩০০ টাকায়। ফজলী পাকা ২৩০০-২৪০০ টাকা থেকে নেমে বিক্রি হচ্ছে ১৭০০-১৮০০ টাকায় অন্যদিকে কাঁচা ফজলি ২১০০ টাকা থেকে কমে ১৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এই নিয়ে কানসার্ট আম আড়ৎদার সমিতির সভাপতি নজরুল ইসলাম জানান পরিবহন ধর্মঘটে প্রায় ২ শতাধিক ট্রাক আটকে আছে। আর এই সব ট্রাক গন্তব্যে না যেতে পারলে প্রায় ১ কোটি টাকারও বেশি তি হবে। যদি ধর্মঘট দীর্ঘায়িত হয় তবে তির পরিমান আরো বাড়বে। জেলার অন্য বাজার গুলোতে দামের কিছুটা হেরফের হলেও সবখানেই দাম কমেছে। আর এই দাম কমায় ক্রেতারা খুশি,চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের পুরাতন বাজারে আশা আলিউজ জামান নুর জানান আমের দাম কমায় ২০ কেজি আম নিয়ে বাসায় যাচ্ছি। অনেকেই এই সুযোগে কিছুটা কম দামে আম কিনেছেন।
এই নিয়ে  চাঁপাইনবাবগঞ্জের এক কুরিয়ার সার্ভিসের পার্শেল ইনচার্জ জানান তাদের শাখা থেকে প্রতিদিন গড়ে  ১ হাজার ঝুড়ি আম দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানোর জন্য বুকিং হত।  পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত আম বুকিং বন্ধ থাকবে বলে জানান তিনি। আর এতে প্রিয়জনের কাছে আম পাঠানো নিয়ে বিপাকে পড়েছেন অনেকে। এই নিয়ে কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক আবুল কালাম আজাদ জানান এবছর আমের উৎপাদন ভাল হয়েছে. সঠিক ভাবে আম পরিবহন ও বাজারজাত করতে পারলে আর্থিক ভাবে লাভবান হবে আম চাষী ও ব্যবসায়ীরা। এেেত্র আম ব্যবসার স্বার্থে আমাদের সকলকেই সহযোগিতা করা উচিত।

Read 3166 times

Leave a comment

Make sure you enter the (*) required information where indicated. HTML code is not allowed.