x 
Empty Product
Thursday, 22 April 2021 23:30

লিচু গাছে আম নিয়ে ‘নাটক’

Written by 
Rate this item
(0 votes)

লিচু গাছে আম! অবিশ্বাস্য ঘটনা। কোনোরকম কাটিং বা কৃত্রিম কোনো পদ্ধতি ছাড়াই এমন ঘটনা ঘটেছে ঠাকুরগাঁও সদরের কলোনীপাড়ায়- এমন দাবি গাছটির মালিকের। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বহু মানুষ এটি দেখতে ভিড় করেন। এরপর সোমবার (১৭ এপ্রিল) বিষয়টি দেশের অধিকাংশ গণমাধ্যমে উঠে আসে।

গাছের মালিক আবদুর রহমান জানান, শুরুটা ভালো হলেও শেষটা বেশ আশাহত করার মতো। প্রভাবশালীদের চক্রান্তে আমটি আর বড় হতে পারেনি। ক্ষোভের বশে আমটি ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে।

তবে জানা যাচ্ছে, চমক সৃষ্টির জন্য এটি ছিল সাজানো নাটক। কারণ আম ছেঁড়ার একদিন পর (বুধবার) সেই আমের বোঁটা শুকিয়ে গেছে, যা স্বাভাবিকভাবে আম ছিঁড়ে নেওয়ার পরে বোঁটার মতো নয়। সঙ্গে আঠাজাতীয় পদার্থের উপস্থিতিও রয়েছে বলে ধারণা হচ্ছে অনেকেরই।

এরপর থেকেই ওই এলাকার বেশিরভাগ মানুষ এটিকে নাটক বলে অভিহিত করছেন। অবশ্য কেউ কেউ বিষয়টিকে অলৌকিক বলেই ধরে নিয়েছেন। এ নিয়ে সারা দেশে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে জেলা প্রশাসন ও কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে একটি প্রতিনিধিদল আজ বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) সেখানে যাবেন বলে জানা গেছে।

জানা যায়, ঠাকুরগাঁও সদরের কলোনীপাড়ার আবদুর রহমান লিচু গাছটি লাগান ৫ বছর আগে। ৩ বছরে গাছটিতে মুকুল আসা শুরু হয়। গত বছরের তুলনায় এবার মুকুলের পরিমাণ বেশি, তাই খুশি গৃহকর্তা। কিন্তু আনন্দের সঙ্গে বিস্ময় যোগ হয়েছে অন্য এক কারণে- লিচুর সঙ্গে একই থোকায় ঝুলছে একটি আম।

আব্দুর রহমান বলেন, গত শনিবার (১৭ এপ্রিল) সকাল ৭টার দিকে লিচু গাছে আমটি দেখে আমার নাতি দেখে আমাকে ডাক দিল। আমার সঙ্গে আরও দুজন লোক ছিল। বলে নানা দেখেন, আল্লাহর কী রহমত লিচু গাছে আম। তারা জীবনে প্রথমবারের মতো এমন ঘটনার সাক্ষী হলেন বলছেন অনেক স্থানীয়রা।

খবর শুনে কৃষি কর্মকর্তারাও ছুটে যান দু'রকম ফল ধরা গাছটির কাছে। কিন্তু এর আগেই রোষাণলের শিকার হয় আমটি।

আব্দুর রহমান জানান, অনেকের মতো স্থানীয় ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার সিকিমের এক আত্মীয়ও আম দেখার জন্য আসার পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় পড়ে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ফলটি নষ্ট করার হুমকি দেন তিনি।

অভিযুক্ত মেম্বার প্রথমদিকে আমটি ছিঁড়ে ফেলার কথা স্বীকার করলেও পরে বিষয়টি ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা দেন।

তিনি বলেন, সারাদিন অনেক দূর থেকে গাড়ি নিয়ে মানুষ আসছে। এতে সোমবার তার ভাতিজা মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হন। করোনার ঝুঁকি বেড়েছে। তাই আবদুর রহমানকে মানুষের সমাগম কমানোর জন্য বলতে গিয়েছিলাম। ওই সময় কেউ হয়তো আমটি ছিঁড়ে ফেলেছে। এখন আমাকে দোষারপ করা হচ্ছে।

এদিকে গত কয়েক দিন এ ঘটনার কোনো বিজ্ঞানসম্মত ব্যাখ্যা দিতে পারেননি উদ্যানতত্ত্ব বিশেষজ্ঞরা। তবে প্রথম থেকেই কয়েকজন বিশেষজ্ঞ বলে আসছিলেন, যে কেউ আঠা দিয়ে লিচুর ডালে আমটি লাগিয়েও দিতে পারে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক আবু হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বিষয়টি ম্যানুপুলেট করা হয়েছে, সেটা এখন বোঝা যাচ্ছে। হয়তো এটি কেউ আঠা দিয়ে লাগিয়ে দিয়েছিল। অথবা অন্য কোনো কৌশলে এটি করা হয়েছিল।’

তিনি বলেন, লিচুর বোঁটাটি লম্বা হলেও আমেরটি স্বাভাবিকের তুলনায় খুব খাটো। এসব দেখে বিষয়টি খটকা লাগছে। ছিঁড়ে ফেলার কারণে এখন সেটা বোঝা যাচ্ছে। বোঁটা শুকিয়ে গেছে, যা স্বাভাবিক বোঁটার মতো নয়। বেশ কালচে।

তিনি আরও বলেন, বিষয়টি আমরাও পর্যবেক্ষণে রেখেছিলাম। আমটি রাখতেও বলা হয়েছিল ওই পরিবারকে। কিন্তু সেটা রহস্যজনকভাবে ছিঁড়ে ফেলা হয়। 

এর আগে গত সোমবার (১৯ এপ্রিল) তিনি সময় নিউজকে বলেছিলেন, এটা একটি বিরল ঘটনা। যা আগে কখনও ঘটেনি। প্রকৃতির ব্যত্যয়ে এমন ঘটনা ঘটতে পারে বলেও মন্তব্য করেছিলে তিনি।

গাছ বিশেষজ্ঞ কে এম সবুজ জানান, এটি গবেষণার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেননা প্রাকৃতিক বা জিনগত বৈশিষ্টের কারণে যদি না হয়, তাহলে পরীক্ষা-নীরিক্ষা ছাড়া আমরা বলতে পানি না যে আসলে এটা কিভাবে হলো।

এদিকে বুধবার বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের উদ্যানতত্ত্ব বিভাগের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. রফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ঘটনাটি আমি জানার পর থেকেই অসম্ভব বলে ধরে নিয়েছি। এমন ঘটনা কোনোভাবে হতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, এক গাছে অন্য ফল শুধু গ্রাফটিংয়ের মাধ্যমে সম্ভব। তবে লিচু ও আমের ক্ষেত্রে এটা করা যাবে না। লিচু ও আমের টিস্যু সিস্টেম এক নয়। লিচুর সঙ্গে আমগাছের ডাল জোড়া লেগেছে এমন উদাহরণ নেই। লিচু ও আম এক পরিবারের উদ্ভিদ নয়।

এই নিউজটির মুল লিখা আমাদের না। আমচাষী ভাইদের সুবিধার্তে এটি কপি করে আমাদের এখানে পোস্ট করা হয়েছে। এই নিউজটির সকল ক্রেডিট: https://www.somoynews.tv/

Read 91 times

Leave a comment

Make sure you enter the (*) required information where indicated. HTML code is not allowed.