x 
Empty Product
Saturday, 19 December 2020 18:09

আমের বিভিন্ন ব্যবহারবিধি ও উপকারিতাসমূহ

Written by 
Rate this item
(0 votes)

আমের বিভিন্ন ব্যবহারবিধি ও উপকারিতাসমূহ
পোড়া ঘায়ে : পোড়া ঘায়ে আম পাতা পুড়ে ছাই করে সেই ছাইকে ঘি অথবা নারিকেল তেলের সাথে মিশিয়ে ঘায়ে (ক্ষতস্থানে)মাখলে অতি দ্রুত পোড়া ঘা সেরে যায়।
দাঁতের সমস্যায় : কচি আমপাতা দিয়ে দাঁত মাজলে দাঁতের মাড়ি শক্ত হয়, নড়াদাত শক্তভাবে লেগে যায় । এ দিয়ে রীতিমত দাঁত মাজলে দাঁত মরা এবং অকালে দাঁত ঝরে পড়া বন্ধ হয় । আমপাতার ক্বাথে কুলি করলে দাঁত ব্যথার উপশম হয়।
চুলের সমস্যায় : কচি আমের আঁটির শাঁস এবং শুকনো আমলকী অল্প পানিতে ভিজিয়ে রেখে সেই পানি মাথায় মাখলে অকালে চুল পাকা বন্ধ হয় । কচি আমের আঁটির শাঁস ভেজানো পানি মাথায় মাখলে চুল পড়ে যাওয়া বন্ধ হয়। এছাড়া কচি আমের আঁটির শাঁস এবং হরিতকী ভালভাবে বেটে মিহি করে মাথায় মাখলে মাথার খুসকেও কমে যায়।

পা ফাটা রোগে আম : শীতকালে অনেকের পায়ের গোড়ালি গেঁটে যায়। একসময় ফাটা এমন বড় হয়ে যায় যে তা দিয়ে রক্ত পড়ে এবং চলাফেরাও কষ্ট সাধ্য হয়ে যায়। এ সব ফাটার প্রথমাবস্থায় আমের আঠা দিয়ে ফাটা পূর্ণ করে দিলে ফাটা আর বৃদ্ধি পায় না এবং চলা ফেরা করতেও কোন প্রকার অসুবিধা হয় না।
কাশি সমস্যায় : আমের ফলি (কাঁচা আমের শুকনো খণ্ড), সামান্য আদা, সামান্য পিপুল, একটু তালমিশ্রী ও মধু এক সঙ্গে বেটে খেলে কাশি ভালভাবেই উপশম হয়।
পেটের সমস্যায় : আমের ছাল রক্ত আমাশয়ে ব্যবহৃত হয়। দুই চামচ ছালের রস, একটু চিনি ও এক কাপ দুধ একত্রে মিশিয়ে কয়েকবার খেলে রক্ত আমাশয় ভাল হয়ে যায়। আম বীজের শাঁস ২০/৩০ গ্রেন মাত্রায় খেলে কেঁচো ক্রিমি পড়ে যায়। আমগাছের ছালের রস খেলে প্রমেহ রোগ সেরে যায়। এছাড়াও আমের ছাল ও পাতা অন্যান্য অনেক অসুখে ঔষধ হিসাবে ব্যবহৃত হয়।
অন্যান্য রোগে আম :
কুনিনখ বাড়লে- যাদের কুনিনখ বাড়ে (বিশেষ করে পায়ের বৃদ্ধাঙ্গুলির নখের কোণা অধিক বৃদ্ধি পেয়ে মাংসের ভিতরে ঢুকে যায়) তাঁরা যদি আমের নরম আঠা ওই নখের কোণে ঢুকিয়ে দেন তবে বেদনা থেকে মুক্তি পাবেন।
উদারময় উপশমে- আমের আঁটির শাঁসের ক্বাথ এবং আদার রস মিশিয়ে খেলে উদারময় উপশম হয়।
বহুমূত্র রোগে- কচি আমপাতা শুকিয়ে ভালভাবে গুঁড়ো করে নিয়ে অল্পমাত্রায় নিয়মিত খেলে বহুমূত্র রোগ উপশম হয়।
গলা ব্যথা নিবারণে- পোড়া আমপাতার ধোঁয়া গা করে মুখের ভিতর নিলে গলা ব্যথা নিবারণ হয় এমনকি হিক্কাও নিবারণ হয়।
মেয়েদের শ্বেতপ্রদর রোগে- আম বীজের (বড়ার) শাঁস শুকিয়ে গুঁড়ো করে তা অল্প মাত্রায় কয়েকদিন খেলে মেয়েদের শ্বেতপ্রদর রোগ উপশম হয়।
আমগাছ অনেক উপকারী একটি গাছ। এর ফল যেমন সুমিষ্ট তেমনি গাছ ও গাছের অন্যান্য অংশও অনেক উপকারী । এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ঔষধি গুণাগুণ। তাই আমাদের উচিত এর যথাযথ ব্যবহার করা।

Read 535 times

Leave a comment

Make sure you enter the (*) required information where indicated. HTML code is not allowed.