x 
Empty Product

বারি আম-৫

User Rating:  / 0
PoorBest 

আঞ্চলিক কৃষি গবেষনা কেন্দ্র যশোরে স্থানীয়ভাবে নির্বাচিত জাত পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ২০১০ সালে করা হয়েছে। আমটি এখন অবধি চাষীদের মাঝে প্রচার পায়নি। আমটি লম্বা ও ছোট আকারের, প্রতিটি আমের গড় ওজন ১৯০ গ্রাম,

আঞ্চলিক কৃষি গবেষনা কেন্দ্র যশোরে স্থানীয়ভাবে নির্বাচিত জাত পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ২০১০ সালে করা হয়েছে। আমটি এখন অবধি চাষীদের মাঝে প্রচার পায়নি। আমটি লম্বা ও ছোট আকারের, প্রতিটি আমের গড় ওজন ১৯০ গ্রাম,

১০ বছরের একটি  গাছে ১৪০-১৬০ কেজি আম উৎপাদিত হয়, জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে আমটি সংগ্রহ করা হয়, পাকা অবস্থায় দেখতে হালকা হলুদ বর্নের ও শাঁসের রং কমলা বর্ণেও ও রসালো এবং মোট খাদ্যাংশ ৭০ ভাগ। আমের মিষ্টিমান (টি এস এস) ১৯-২০ % এবং সংগ্রহকাল ৫-৮ দিন। জাতটি স্তানীয়ভাবে প্রান্থশালা নামে পরিচিত ছিল। যশোর ও উত্তর পশ্চিম অঞ্চলের জেলাগুলোতে চাষাবাদের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন ফসল ও ফলের নতুন জাত উদ্ভাবনের জন্য বহুমুখী গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় একটির নাম বারি-২ ।এদেশের আমচাষীদের আম চাষাবাদে আগ্রহের কথা বিবেচনা করে বাংলাদেশ নতুন জাতগুলো আমচাষীদেরকে বানিজ্যকভাবে আম চাষাবাদের জন্য আগ্রহ সৃষ্টি করবে বলে বিজ্ঞানীদের আশাবাদ। জাতীয় আম প্রদর্শণী ও রঙিন আম প্রদর্শণীর মাধ্যমে আমের অনেক জাত সংগ্রহ করা হয়। পরে জাতগুলোর উপর কয়েক বছর নিবিড় গবেষণা করা হয়। তারপর জাতগুলো অনুমোদনের জন্য জাতীয় বীজ বোর্ড পাঠানো হয়।জাতটি নির্বাচন পদ্ধতির মাধ্যমে মুক্তায়িত করা হয়েছে।কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট একের পর এক উচ্চফলনশীল জাত  উদ্ভাবন করে চলেছে।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found