x 
Empty Product

কাটিমন

User Rating:  / 1
PoorBest 

আমাদের চাঁপাই বা রাজশাহীতে বারোমাসী আম বলতে যে দু’চারটে বারোমাসী জাত আছে সেগুলোর কোনটারই গুণগত মান সন্তোষজনক নয়। সাধারণভাবে বারোমাসী আম আকারের ছোট ও টক হয়ে থাকে। ইতোপূর্বে বাংলাদেশ

আমাদের চাঁপাই বা রাজশাহীতে বারোমাসী আম বলতে যে দু’চারটে বারোমাসী জাত আছে সেগুলোর কোনটারই গুণগত মান সন্তোষজনক নয়। সাধারণভাবে বারোমাসী আম আকারের ছোট ও টক হয়ে থাকে। ইতোপূর্বে বাংলাদেশ

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্রুট ট্রি ইম্প্রুভমেন্ট প্রকল্প হতে যে দু’একটি বারোমাসী আম জাতের প্রবর্তন করা হয়েছিল সেসব আমও সার্বিক গুণগত মানের বিচারে তেমন একটা জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারেনি।

কিন্তু চুয়াডাঙ্গার আম বাগানী ও নার্সারী মালিক আবুল কাসেম তার ব্যাতিক্রম করে দেখিয়েছেন। বিভিন্ন মিডিয়া প্রকাশ করছে যে আবুল কাসেম সাহেবের আম-

★বছরে তিনবার ধরে এবং প্রতি গাছে আমের সংখ্যাও যথেষ্ট বেশি;
★প্রতিটি মৌসুমেরই প্রতিটি আমের ওজন ২০০-৩০০ গ্রামের মত।
★লম্বাটে জাতের এই আম পাকলে হলুদাভ সুষম রং হয়। পাকা আম দেখলে মনে হবে কেমিক্যালে পাকানো আম;
★আমে কোন আঁশ নেই; আর প্রচুর মিষ্টি;
★রোগবালাই নেই বললেই চলে। আম বাগানেও কোন রোগ বালাইয়ের দেখা মেলেনি;
★প্রতিটি মৌসুমের আমের স্বাদই অপূর্ব;
★স্বাভাবিক রুমের তাপমাত্রায় এই আম ২০-২৫ দিন পর্যন্ত অনায়াসে সংরক্ষণ করা যায়।

আমি চাই আমাদের চাঁপাইতেও বারমাস আম হোক। আর এটা না করতে পারলে খুব সুদুরে চাঁপাই তার ঐতিহ্য হারাবে। আমি নিজেও একটা বাগান করার কথা ভাবছি।

আরও কিছু ছবিঃ

আপনারা কেউ যদি বারোমাসী এই থাই আম সম্পর্কে জানতে চান বা এই আমের চারা সংগ্রহ করতে চান তাহলে নিচের ফোন নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন:

*আবুল কাসেম: ০১৭১৬-৩৩১৯৫৫
*নাজমুল (আবুল কাসেমের বড় ছেলে): ০১৯৩১-২৪৯৭৩৭
*তাজুল (আবুল কাসেমের মেঝ ছেলে): ০১৯৩০-৭৩৪০৪১

 

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found