কিভাবে যাবেন আমের দেশে

User Rating:  / 0
PoorBest 

ঢাকা থেকে চাঁপাই নবাবগঞ্জ ৩৬০ কি.মি.

যাতায়তের একমাত্র সরাসরি যোগাযোগ মাধ্যম বাস। বাস ভাড়া ৫০০ টাকা । সময় লাগে প্রায় ৬ থেকে ৮ ঘন্টা। প্রধান প্রধান বাস সার্ভিস হানিফ এন্টারপ্রাইজ, মডার্ণ এন্টারপ্রাইজ, দেশ ট্রাভেলস, ন্যাশনাল ট্রাভেলস ইত্যাদি।

ঢাকা থেকে চাঁপাই নবাবগঞ্জ ৩৬০ কি.মি.

যাতায়তের একমাত্র সরাসরি যোগাযোগ মাধ্যম বাস। বাস ভাড়া ৫০০ টাকা । সময় লাগে প্রায় ৬ থেকে ৮ ঘন্টা। প্রধান প্রধান বাস সার্ভিস হানিফ এন্টারপ্রাইজ, মডার্ণ এন্টারপ্রাইজ, দেশ ট্রাভেলস, ন্যাশনাল ট্রাভেলস ইত্যাদি।

বিভিন্ন জায়গায় তাদের টিকেট কাউন্টার রয়েছে, তবে প্রধান কাউন্টারগুলো হলো হানিফ এন্টারপ্রাইজ-কলেজ গেট, শ্যামলী ঢাকা; মডার্ণ এন্টাপ্রাইজ- কল্যাণপুর, ঢাকা। ফোন নং ট্রেনে রাজশাহী পর্যন্ত আসা যেতে পারে, সেখান থেকে চাঁপাই নবাবগঞ্জ বাস দেড় ঘন্টার পথ।

রাজশাহী থেকে চাঁপাই নবাবগঞ্জ ৪৮ কি.মি.

প্রধান দুটি বাস সার্ভিস হলো “মহানন্দা বাস সার্ভিস” ও “গেট লক সার্ভিস”। এই দুই সার্ভিসের নির্ধারিত সময়সীমা রাজশাহী থেকে চাঁপাই নবাবগঞ্জ ১ঘন্টা ২০ মিনিট। দুটো সার্ভিস একই সমিতি দ্বারা পরিচালিত, তবে মহানন্দা'য় দাঁড়ানো যাত্রী নেয়া হয় আর গেইট লক-এ নেয়া হয়না। “মহানন্দা বাস সার্ভিস”-এর গাড়িগুলো ছাড়ে “মহানন্দা” বাস কাউন্টার থেকে। “গেট লক সার্ভিস”-এর গাড়িগুলো প্রধান বাস টার্মিনাল থেকে ছাড়ে। বাস ভাড়া ৭৫ টাকা ।

সোনামসজিদ স্থল বন্দর থেকে চাঁপাই নবাবগঞ্জ

লোকাল বাস সার্ভিসের পাশাপাশি সেমি-গেটলক নামে একটি বাস বার্ভিস রয়েছে এই পথে।

অন্যান্য জেলায় যাতায়াত:

একমাত্র বিআরটিসি বাস সার্ভিস চাঁপাই নবাবগঞ্জ থেকে বেশ কয়েকটি শহরের উদ্দেশ্যে ছেড় যায়। যেমন: রংপুর, দিনাজপুর, বগুড়া, কুষ্টিয়া, মাগুরা, ফরিদপুর ও বরিশাল।

জেলার মধ্যে চলাচল:

জেলার মধ্যে বিভিন্ন উপজেলায় যাবার জন্য এবং রাজশাহী সদরে যাবার জন্য সর্বমোট ৪টি রুটে বাস চলাচল করে।

১. চাঁপাই নবাবগঞ্জ - রাজশাহী
 ২. চাঁপাই নবাবগঞ্জ - শিবগঞ্জ
 ৩. চাঁপাই নবাবগঞ্জ - নাচোল
 ৪. চাঁপাই নবাবগঞ্জ - গোমস্তাপুর

শহরের মধ্যে চলাচল:

শহরের মধ্যে চলাচলের জন্য ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা ও সাইকেল রিক্সা ব্যবহার করা হয়।

থাকাঃ

থাকার জন্য কয়েকটি হোটেলঃ হোটোল আল নাহিদ হোটেল স্বপ্নপুরী

খাবার হোটেল:

এক. দেশী খাবারের জন্য জনপ্রিয় রেস্টুরেন্ট আলাউদ্দীন, উদয়ন মোড়। এছাড়াও রয়েছে রাঁধুনী এবং আরো অন্যান্য রেস্টুরেন্ট।
 দুই. চাইনিজ খাবার: আলাউদ্দীন চাইনিজ রেস্টুরেন্ট, উদয়ন মোড় এবং চাংপাই চাইনিজ রেস্টুরেন্ট, শান্তিমোড়।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found