x 
Empty Product

মার্চ মাসে আমের যত্ন

User Rating:  / 1
PoorBest 

আম বাংলাদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ ফল। বাংলাদেশের মোট ১,২৪,৫২০ একর জমিতে আম চাষ হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও দিনাজপুর অঞ্চলে উন্নত জাতের আম পাওয়া যায়। ফজলি, ল্যাংড়া, গোপাল ভোগ, হিমসাগর,

আম বাংলাদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ ফল। বাংলাদেশের মোট ১,২৪,৫২০ একর জমিতে আম চাষ হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও দিনাজপুর অঞ্চলে উন্নত জাতের আম পাওয়া যায়। ফজলি, ল্যাংড়া, গোপাল ভোগ, হিমসাগর,

আশ্বিনা, ক্ষীরসাপাতি, কৃষাণভোগ, কুয়াপাহাড়ি, লতা, বোম্বাই, মহানন্দা, লক্ষণভোগ, আম্রপালি ও মোহনভোগ ইত্যাদি কত না জাতের আম। অধিকাংশ আমের জাত ভালো বৃষ্টি এবং উষ্ণ আবহাওয়া বেশি উপযোগী। সুনিষ্কাশিত, হালকা অমস্নীয় এবং বেলে দো-অাঁশ মাটি আমের জন্য দরকার। বাতাসে কম আর্দ্রতা, ঠা-া এবং শুষ্ক আবহাওয়া ফুল ধারণের জন্য প্রয়োজন। আর এ কারণেই বাংলাদেশের বৃহত্তর রাজশাহী বিভাগের চাঁপাইনবাবগঞ্জ অঞ্চলে আম উৎপাদনের জন্য বেশি উপযুক্ত এবং এ অঞ্চলে ফলন বেশি হয়।
 এখন ফাগুন মাস, আমে মুকুল আসার সময়। এ সময় বেসিন প্রক্রিয়ায় মাঝে মধ্যে সেচ দেয়া উত্তম। মুকুল আসার আগে গাছের গোড়া থেকে ১-২ ফুট বাদ দিয়ে দুপুরের রোদের সময় যতটুকু জায়গায় গাছের ছায়া পড়ে ঠিক ততটুকু জায়গায় ৫০০ গ্রাম থেকে ১ কেজি (ইউরিয়া:টিএসপি:এমপি: ২:১:১) বয়স ভেদে রাসায়নিক সার উপরি প্রয়োগ করে, কুপিয়ে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিতে হবে।
 গাছের মুকুল এলে বা তার পরে অ্যানথ্রাকনোজ, সুটিমোল্ড এবং পাউডারি মিলডিউ রোগের আক্রমণ দেখা যায়। যার ফলে মুকুল ঝরে যায় এবং পাতা ও আমের গায়ে কালচে দাগ হয় এবং আমের ফলন কমে যায়। তাছাড়া মুকুল আসতে শুরু হলে হপার, উইভিল, বিছাপোকা ও মাছি পোকার আক্রমণ হয়। ফলে এসব রোগ ও পোকা-মাকড়ের জন্য ফলন কমে যায়। গাছের মুকুল আসতে শুরু করলে কিন্তু ফুল ফোটার আগে ব্যাভিস্টিন (২ গ্রাম/লি)/ টিল্ট (০.৫ এমএল/লিটার)/ডাইথেন এম-৪৫ (২ গ্রাম/লিটার) বা রিডোমিল গোল্ডের (৫ গ্রাম/লিটার) সঙ্গে রিপকর্ড/সিমবুস/ডেসিস (১ এমএল/লিটার) পানিতে মিশিয়ে স্প্রে করতে হবে। আমের আকার মটর দানার মতো হলে দ্বিতীয়বার স্প্রে করলে উপরোক্ত রোগের আক্রমণ হবে না এবং আমের সর্বোচ্চ ফলন হবে।
 রাসায়নিক বালাইনাশক বিকালবেলা বা সন্ধ্যায় ছিটানো উত্তম, সকালে ছিটালে উপকারি পোকার ক্ষতি হয়। মনে রাখতে হবে অধিক ফলনের পূর্বশর্ত সুষ্ঠু পরাগায়ন, আর এ পরাগায়নে প্রত্যক্ষ ভূমিকা রাখে উপকারি পোকা।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found