x 
Empty Product

চাঁপাই মহেষপুর জামে মসজিদ

User Rating:  / 0
PoorBest 

চাঁপাই মসজিদটি সদর উপজেলাধীন গোবরাতলা উইনিয়নের চাঁপাই মহেষপুর গ্রামে মহানন্দা নদীর একবারেই তীরভূমিতে অবস্থিত। মসজিদটি কত সালে নির্মিত হয়েছে এ নিয়ে রয়েছে যথেষ্ঠ মতভেদ আর বিতর্ক। প্রাচীন এ মসজিদের দৈর্ঘ্য(উত্তর দক্ষিণে বহির্ভাগে )

চাঁপাই মসজিদটি সদর উপজেলাধীন গোবরাতলা উইনিয়নের চাঁপাই মহেষপুর গ্রামে মহানন্দা নদীর একবারেই তীরভূমিতে অবস্থিত। মসজিদটি কত সালে নির্মিত হয়েছে এ নিয়ে রয়েছে যথেষ্ঠ মতভেদ আর বিতর্ক। প্রাচীন এ মসজিদের দৈর্ঘ্য(উত্তর দক্ষিণে বহির্ভাগে )

৪০ ফুট ৬ ইঞ্চি এবং  প্রস্থ (পূর্ব পশ্চিমে বহিরাংশে) ১৭ ফুট। তিন গম্বুজ বিশিস্ট এ মসজিদটির সম্মুখভাগে রয়েছে হালকা ৩ টি খিলান দরজ। উত্তর ও দক্ষিণে ২ টি জানালা  রয়েছে । প্রতিটি জানালা দরজার  ওপর রয়েছে বাংলা ঘরের এক চালার মত প্রতিকৃতি। মসজিদের মূল ভিত্তি দেয়াল ১ ফুট ১০ ইঞ্চি। উর্দ্ধে উথিত গম্বুজ খিলান গুলো শক্ত করার লক্ষ্যে প্রতি খিলানের সঙ্গে মুল ভিত্তি হতে বর্হিদেশে আরো ১ ফুট ১০ ইঞ্চি পিলারের বেষ্টনি তৈরি করা হয়েছে। প্রতিটি খিলানের প্রস্থ ২ফুট ৪ ইঞ্চি। মসজিদের বেষ্টনি শক্ত করার লক্ষে রয়েছে চার কোণে ৪টি বহু ভূজাকৃতির বুরুজগুলো  মসজিদের অভ্যন্তওে পশ্চিম দেয়ালে রয়েছে কেবলামুখী ৩ টি মিহরাব মুল মধ্যবর্তি মিহরাবটি অপেক্ষাকৃত বড় এবং ইটের ওপর বিশেষ কারুকাজ।  তাতে পোড়া মাটির বিচিত্র নকর্শা গুল্মলতা,ফুলপাতা সহ নানা শোভা বর্ধক চিত্র বিদ্যামান । মসজিদেও বহিগাত্র চুন সুরকির সাহায্যে আচ্ছাদিত।

                প্রাচীন এ মসজিদটি উত্তর দক্ষিণে রয়েছে বেশ কয়টি কুলুঙ্গি। গম্বুজের উপরাংশে শাপলা  আকৃতির শোভা বর্ধক নকশা দেখা যায়। শীর্ষ দেশে ক্ষুদ্র করলস ও হাড়ি আকৃতির চূড়া দেখাযায়। চার বুরুজের উপরাংশে ৪টি ছোট মিনার স্থাপিত। মসজিদেও পূর্ব দেয়ালের বহিরাংশে মেরলনের নকশা বর্তমানে আংশিক হলেও টিকে রয়েছে । গম্বুজ ত্রয় খিলানের উপরাংশে তৈরী ড্রামের ওপর স্থাপিত। মসজিদটি গৌড়িয়া ইটের সাহায্যে তৈরী। মসজিদ নির্মানের তারিখ নিয়ে রয়েছে নানা মতভেদ।মসজিদ গাত্রের মধ্যবর্তি দরজার নিলটেইলের উপর রক্ষিত দেয়ালে সাটানো একটি শিলা লিপি এ মতভেদকে আরো ঘনিভূত করেছে। এ মসজিদের শিলা লিপির দৈর্ঘ্য ১ ফুট ৫ ইঞ্চি। মসজিদের গঠন প্রনালি প্রমান করে যে এটি নবাবী আমলে তৈরী। কিন্তু বিতর্ক বাধিয়েছে শিলা লিপিটি। লিপিটি আদৌতে এ মসজিদের নয় বলে মনে হয়। লিপিটি অন্য কোন ধ্বংসপ্রাপ্ত মসজিদ হতে আনিত বলে প্রতিয়মান হয়।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found