x 
Empty Product
Monday, 16 December 2019 10:22

সবচেয়ে জনপ্রিয় ১০ ফলের ২য় নাম্বারে আম

Written by 
Rate this item
(0 votes)

স্বাস্থ্যকর খাবার হিসেবে ফলের তুলনা নেই। ফল সুস্বাদু ও কোলেস্টেরলমুক্ত। প্রচুর আঁশযুক্ত, ভিটামিন ও খনিজ লবণসমৃদ্ধ বলে সব বয়সের মানুষই খেতে পছন্দ করে। ইংরেজিতে একটি প্রবাদ আছে, ‘অ্যান অ্যাপল আ ডে কিপস দ্য ডক্টর অ্যাওয়ে অর্থাৎ প্রতিদিন একটি আপেল খেলে চিকিৎসকের প্রয়োজন হয় না’। অনেক ফলই আমাদের প্রিয়। অবশ্য কিছু থাকে পছন্দের শীর্ষে। পৃথিবীর বেশিরভাগ মানুষ কোন ফল খেতে পছন্দ করে তার তালিকা করেছে দ্য টপ টেনস। সবচেয়ে জনপ্রিয় ১০ ফল নিয়েই আজকের আয়োজন-

১.স্ট্রবেরি: সর্বকালের সবচেয়ে সেরা ফলের নাম স্ট্রবেরি! কারণ, শিশু, কিশোর, যুবক, প্রবীণ সবার মুখেই নাকি মুহূর্তেই হাসি ফোটাতে পারে এ ফল। গোলাপ পরিবারের ফলটি বাণিজ্যিকভাবে প্রচুর পরিমাণে চাষ করা হয়। প্রায় সব আবহাওয়াতে জন্মানোর উপযোগী স্ট্রবেরি মিষ্টিসহ নানা স্বাদের হতে পারে। বাংলাদেশে প্রায় ২০টি জেলায় চাষ হচ্ছে।

২. আম: ফলের জগতে আম অতুলনীয়। স্বাদে, গন্ধে, রঙে যেমন বিচিত্র তেমনি নামেও। গোপালভোগ, ক্ষিরসাপাতি, আম্রপালি, রাণীপছন্দ, ফজলি, ল্যাংড়াসহ রয়েছে নানা জাত। পুষ্টিগুণে অনন্য রসালো ফলটির আদিনিবাস ভারতীয় উপমহাদেশ। আম ভারত, পাকিস্তান, ফিলিপাইনের জাতীয় ফল এবং এর গাছ বাংলাদেশের জাতীয় বৃক্ষ।

৩. তরমুজ: গ্রীষ্মকালীন রসালো ফল। আফ্রিকা থেকে ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের নানা প্রান্তে। ফল ছাড়াও সালাদ, জুস হিসেবে খাওয়া হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা কর্তৃপক্ষ তরমুজকে ‘রাজ্য সবজি’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

৪. আপেল: গোলাপ পরিবারভুক্ত ফলটি প্রথম পাওয়া যায় মধ্য এশিয়ায়। মিষ্টি স্বাদের জন্য জনপ্রিয় বিশ্বজুড়ে। আপেল নিয়ে রয়েছে ধর্মীয় ও পৌরাণিক নানা কিংবদন্তি। অস্ট্রিয়া ও জার্মানির জাতীয় ফল আপেল।

৫. কলা: সহজলভ্য ফলের তালিকায় এক নম্বরে কলা। ফলন হয় সারা বছর। পুষ্টির জন্য তুলনাহীন। আদিনিবাস দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া। বাংলাদেশসহ বহু দেশেই প্রচুর পরিমাণে কলা উৎপাদিত হয়।

৬. আঙ্গুর: স্বাদের জন্য আঙ্গুরের স্থান অনেকের পছন্দের শীর্ষে। ফল ছাড়াও জেলি, জুস তৈরিতে ব্যবহার হয়। আঙ্গুর চাষের ইতিহাস ৬ থেকে ৮ হাজার বছরের। কাঁটাযুক্ত গাছে থোকায় থোকায় ফল। ভিটামিন ও খনিজ উপাদানে সমৃদ্ধ।

৭. আনারস: মৌসুমী ফলটি আমাদের দেশে প্রচুর পরিমাণে হয়। উৎপত্তি দক্ষিণ আমেরিকায়। রসালো আনারসের পুষ্টিগুণ অনন্য। বৈশ্বিক উৎপাদনে শীর্ষে ব্রাজিল, কোস্টারিকা, ফিলিপাইন।

৮. কমলা: চার হাজার বছর পূর্বে চীনে কমলার চাষ শুরু হয়। বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ফলটি পৃথিবীর প্রায় সর্বত্র পাওয়া যায়। বাংলাদেশের সিলেট, পার্বত্য চট্টগ্রাম, রংপুর, পঞ্চগড়ে কমলা চাষ হয়। ফল এবং জুস হিসেবে খাওয়া হয়।

৯. রাস্পবেরি: ফলের রঙ লাল, কালো বা হলুদ হতে পারে। স্বাদে হালকা মিষ্টি বা টক। ফল চর্বিমুক্ত এবং আঁশে পরিপূর্ণ। উৎপাদনে এগিয়ে রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, পোলান্ড।

১০. পিচ: শীতপ্রধান দেশের ফল। উৎপত্তি চীনে। সেদেশেই বর্তমানে প্রায় ৫৮ শতাংশ ফলন। এছাড়া স্পেন, গ্রিস, দক্ষিণ কোরিয়া, ভিয়েতনাম ও যুক্তরাষ্ট্রে জন্মে। গোলাপি ফুলের সৌন্দর্যও দেখার মতো।

Read 140 times

Leave a comment

Make sure you enter the (*) required information where indicated. HTML code is not allowed.